আজ শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১

ভালো মৃত্যু এবং খারাপ মৃত্যুর আলামতঃ আজহারী

 প্রকাশিত: ২০২১-০১-২৬ ১১:২৯:২৪

ডেইলিসিলেটনিউজ.কম:

“ভালো মৃত্যু এবং খারাপ মৃত্যুর আলামত কেমন হবে” এমন শিরোনামে ইউটিউবে একটি ভিডিও আপলোড করেছেন মিজানুর রহমান আজহারী৷

পরবর্তীতে মিজানুর রহমান আজহারী তার ফেসবুক পেজে ভিডিও’র লিংক সহ একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন৷ পাঠকদের জন্য মিজানুর রহমান আজহারীর ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

মৃত্যু একটি অনিবার্য বাস্তবতা। এ পৃথিবীর কাউকে আল্লাহ তা’আলা অমরত্ব দান করেননি। তাই, প্রতিটি প্রাণকেই মৃত্যুর স্বাদ আস্বাদন করতে হয়।

নশ্বর এ মহাবিশ্বে, তিনি একাই কেবল অবিনশ্বর। আল্লাহ তা’আলা ইরশাদ করেন: “মহাবিশ্বে যেখানে যা-কিছু আছে, সবকিছু নি:শেষ হয়ে যাবে। অবশিষ্ট থাকবে শুধু তোমার প্রতিপালকের সুমহান সত্তা, যিনি মহামহিম, মহানুভব। অতএব, তোমরা তোমাদের প্রতিপালকের কোন নেয়ামতকে অস্বীকার করবে?”

[সূরা আর-রাহমান, আয়াত: ২৬-২৭]

কিন্তু বিস্ময়জনক ব্যাপার হচ্ছে, মৃত্যু সুনিশ্চিত জানলেও, কখন? কোথায়? অথবা, কিভাবে আমাদের মৃত্যু সংঘটিত হবে? তা কিন্তু আমরা কেউই জানিনা। এটা আমাদের কাছে একেবারেই অজানা, অনিশ্চিত এবং রহস্যময়।

“The most certain matter in our life is death, but the most uncertain matter in our life is the time and the place of our death.”

মু’মিন মাত্রই আমরা সবাই “হুসনুল খাতিমা” তথা সুন্দর বিদায় বা ইমানী মৃত্যু কামনা করি। প্রত্যেকেই চাই যে, চির বিদায়ের মুহুর্তটি এমন হোক,

যেন আমার রব আমার উপর সন্তুষ্ট, আর আমিও আমার রবের প্রতি সন্তুষ্ট। অনুভূতিটা যেন এমন হয় যে, আমি আমার সবচেয়ে কাছের অভিবভাবকের কাছেই ছুটে যাচ্ছি। আর এভাবে বিদায় নিতে পারাটাই পরম সৌভাগ্যের এবং পরম সফলতার।

আল্লাহ তা’আলা ইরশাদ করেন: “নিশ্চই যারা ঘোষণা করে যে, আমাদের প্রতিপালক আল্লাহ এবং এরপর সত্যপথে অবিচল থাকে, (মৃত্যুর পূর্বমহূর্তে) তাদের কাছে ফেরেশতারা এসে বলে, তোমরা ভয় পেয়ো না, চিন্তা কোরো না; বরং তোমাদেরকে যে জান্নাতের প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে, সে সুসংবাদে আনন্দিত হও।”

[সূরা ফুস্সিলাত, আয়াত: ৩০]
.
আনাস (রা:) থেকে বর্ণিত, আল্লাহর রাসূল (ﷺ‬) ইরশাদ করেন: “যখন আল্লাহ তা’আলা কোন মানুষের কল্যাণ করতে চান, তখন তাকে সুযোগ করে দেন। সাহাবাগণ জিজ্ঞেস করলেন, ইয়া রাসূলাল্লাহ, তিনি কিভাবে সুযোগ করে দেন? রাসূল (ﷺ) বললেন: মৃত্যুর পূর্বে তাকে সৎকাজ করার সামর্থ দান করেন।”

[সুনানে তিরমিজি]

তাই, মহীয়ান গরীয়ান রাব্বে কারীমের দরবারে, এটাই ফরিয়াদ যে “আমাদের শেষটা যেন ভালো হয়।” সেই অন্তিম মুহূর্তে আমাদেরকে যেন তিনি এভাবে সম্বোধন করেন: “হে প্রশান্ত আত্মা! তুমি তোমার প্রতিপালকের কাছে সন্তুষ্টচিত্তে ফিরে এসো। আজ আমিও তোমার ওপর সন্তুষ্ট। আমার প্রিয় বান্দাদের মধ্যে শামিল হও। আর, প্রবেশ করো আমার জান্নাতে।”

[সূরা আল-ফজর, আয়াত: ২৭-৩০]

কিভাবে বুঝব যে, কারো মৃত্যুটি ভালো ছিল নাকি খারাপ ছিল? “মৃত্যু” শিরোনামের এই আলোচনাটিতে, খুব সংক্ষেপে এ বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে। নিজে শুনুন এবং প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করুন।

মৃত্যুঃ মিজানুর রহমান আজহারী (ভিডিও)

আপনার মন্তব্য