আজ শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

ভোজ্য তেলের দাম বাড়ায় বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ

 প্রকাশিত: ২০২১-০১-২৮ ১৭:০৫:৫১

ডেইলিসিলেটনিউজ.কম:

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ভোজ্য তেলের অস্বাভাবিক দাম বাড়ায় বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ। প্রতি লিটার ১শ’ টাকা থেকে ক্রমাম্বয়ে দাম বেড়ে খুচরা বাজারে ১৩৫ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। গতকাল বুধবার উপজেলার বিভিন্ন বাজারের মুদি দোকান ঘুরে এ তথ্য পাওয়া যায়।
সরেজমিনে ভানুগাছ ও শমশেরনগর বাজার ঘুরে দেখা যায়, কিছুদিন আগেও সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১০৫ টাকা দরে বিক্রি হতো। বর্তমানে ১২৫ টাকা থেকে ১৩৫ টাকা প্রতি লিটার সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে। ৬৫ টাকা থেকে বেড়ে প্রতি লিটার পাম অয়েল বিক্রি হচ্ছে ১০৫ টাকায়। ভোজ্য তেলের দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যাওয়ায় চরম বিপাকে পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষজন। তবে বেশি দামে কিনতে হচ্ছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবি করছেন।
ক্রেতারা জানান, হাটবাজারে টিসিবি’র পণ্য যথেষ্ট পরিমাণে না থাকায় ব্যবসায়ীরা তাদের ইচ্ছেমতো দাম বাড়াচ্ছেন। তাছাড়া টিসিবি’র পণ্যও সঠিকভাবে ভোক্তারা পাচ্ছেন না। ফলে নিম্ন আয়ের লোকদের ভোগান্তিতে থাকতে হয়।
ঠেলা চালক আব্দুল্লা মিয়া, কৃষক মানিক মিয়া, গৃহিনী হাজেরা বেগম জানান, দৈনিক যে আয় হয় তা দিয়ে ঠিকমতো সংসার চালানো দায়। এরপরও ওষুধপত্র, কাপড় চোপড়, সন্তানদের পড়াশুনা করানোর খরচটাও বহন করতে হয়।
তারা আরও জানান, এতোদিন পেঁয়াজ ও আলুর বেশি দাম থাকায় ভোগান্তি হয়েছে। সেগুলোর দাম কমতে না কমতে তেলের দাম বেড়ে গেছে। আসলে এই দামে তেল কেনা ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে বলে তারা মন্তব্য করেন।
কাইয়ুম উদ্দীন, স্বর্ণজ্যোতি পাল, সায়েদ মিয়া, কুদ্দুস মিয়া, সুমন দে সহ কয়েকজন মুদি দোকানী জানান, নতুন যেসব মালামাল শ্রীমঙ্গলের পাইকারী বাজার থেকে কিনে আনি সেখানে বোতলজাত সয়াবিনের প্রতি লিটার ১২৯ টাকা। আর বোতলের গায়ে লেখা খুচরা বাজারের দর ১৩৫ টাকা। ফলে আমরা ১৩৫ টাকাই বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছি।
এ ব্যাপারে শমশেরনগরের টিসিবি’র ডিলার মো. জয়নাল মিয়া জানান, মাত্র ২শ’ লিটার সয়াবিন তেল আর ৩ হাজার কেজি পেঁয়াজ দেয়া হয়। এতে দ্রুত সয়াবিন তেল শেষ হয়ে যায় এবং পেঁয়াজ রয়ে যায়। যে কারণে গত দু’মাস ধরে আমি টিসিবি’র কোন মালামাল বিক্রি করছি না। বর্তমানে পেঁয়াজের দর নেমে যাওয়ায় এতে ক্রেতাদের চাহিদা নেই।
কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক জানান, যেহেতু এখন ভোজ্য তেলের দাম বেড়েছে, তাই যাতে ভোজ্য তেল বেশি বরাদ্ধ হয়, সে বিষয়ে টিসিবি’র উর্দ্ধতন পর্যায়ে কথা বলবো।

আপনার মন্তব্য