আজ মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০২০

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞা জানিয়ে সুনামগঞ্জে আনন্দ শোভাযাত্রা

চলতি বছরেই সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর ---পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান

 প্রকাশিত: ২০২০-০১-০৬ ১১:১৮:৪১

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বাঙালীরা এখন আর মাথা নীচু করে হাঁটে না, এখন বাঙালীরা গর্বিত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এখন বাঙালীরা অনুপ্রারিত এবং সারা বিশ্বে নিজের পরিচয়ে দাঁড়াতে পারছে। তিনি বলেন, চারিদিকে কাজ আর কাজ। আপনি ঢাকা শহরে যান, সিলেট, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনায় যান সব জায়গায় ভাঙা গড়ার কাজ চলছে। আপনারা শুনে অবাক হবেন সাগরের নিচ দিয়ে ৬ ফুট লম্বা আমরা সুরঙ্গ তৈরি করছি। অর্ধেকেরও বেশি কাজ ইতোমধ্যে হয়ে গেছে।
সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সুবিপ্রবি) অনুমোদিত হওয়ায় গতকাল রোববার বিকেল ৩ টায় সুনামগঞ্জ জেলা স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসনের আয়োজিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন ও তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে অনুষ্ঠিত বিশাল সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিশাল সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী আরো বলেন, আপনারা পদ্ম সেতু দেখেছেন অর্ধেকেরও বেশি কাজ শেষ করে ফেলেছি। আর মাত্র ৪-৫ মাস আমরা সম্পূর্ণ কাজ শেষ করে ফেলবো। আমাদের মাথার উপরে উপগ্রহ আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চান আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যেনো মহাকাশে যেতে পারে। তিনি বলেন, আমেরিকা, রাশিয়ার মতো দেশ মহাকাশে যেতে পারলে আমরাও যেতে পারবো। আমরা বাংলাদেশের কোন জায়গা অনুন্নত থাকতে দেবো না। তাই, আসুন আমরা সবাই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হই। তার হাতকে শক্তিশালী করুন। তিনি বলেন, যারা বাংলাদেশকে বিশ্বাস করে না, যারা বাঙালী বলে নিজের পরিচয় দিতে চায় না। যারা মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী তাদের বাদ দিয়ে বাংলাদেশের শত্রুদের বিপক্ষে ঐক্যবদ্ধ হোন।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, সুনামগঞ্জের উন্নয়নের ক্ষেত্রে ইতিমধ্যে মেডিকেল কলেজের কাজ শুরু হয়েছে। আর দু’তিনটি প্রাতিষ্ঠানিক কাজ সম্পূর্ণ করে এ বছরের মধ্যে সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে অনুরোধ করবো। তাছাড়া, আমরা কাজ করছি ছাতক থেকে রেল সুনামগঞ্জে নিয়ে আসবো। রেল সুনামগঞ্জ আসবে এই সরকারের আমলেই। এই রেল লাইনটি শুধু সুনামগঞ্জ পর্যন্ত এসে শেষ হবে না, ময়মনসিংহ যাওয়ার জন্য চিন্তা রয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত সাহসী ও ইমানদার। এদেশের পিছিয়ে পড়া মানুষের জন্য প্রকল্প নিতে পিছপা হননি। ইমানের জোরেই তিনি দেশ চালাচ্ছেন। কাজের স্বচ্ছতায় তার ইমান অত্যন্ত শক্তিশালী। তার সঙ্গে আমরা যারা কাজ করি বিনা সংকোচে কাজ করি। কারণ, শেখ হাসিনা চান দেশের মানুষের উন্নয়ন করতে। তাই, দেশের উন্নয়নে যেকোন পরিকল্পনা নিলে তিনি খুশি হন।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী সুনামগঞ্জের উন্নয়নে ও হাওর, পাহাড়সহ পিছিয়েপড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক। তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার সকল কাজ খেটে খাওয়া মানুষ তথা নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য। হাওরে উড়াল সড়ক নির্মাণের পরিকল্পনা শেষ পর্যায়ে। এখন এ প্রকল্পের ঘসামাজা চলছে বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।
সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হায়দার চৌধুরী লিটন ও শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক দেওয়ান ইমদাদ রেজা চৌধুরীর যৌথ পরিচালনায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সুনামগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ড. জয়াসেন গুপ্ত, সিলেট ও সুনামগঞ্জ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য শামীমা আক্তার খানম, সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়াম্যান নূরুল হুদা মুকুট, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মতিউর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন, দোয়ারাবাজারের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইদ্রিছ আলী বীর প্রতীক, সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শামছুননাহার বেগম শাহানা, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত।
এর আগে জেলা কালেক্টরেট চত্বর থেকে পরিকল্পনামন্ত্রীর নেতৃত্বে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে এক শোভাযাত্রা শহর প্রদক্ষিণ করে জেলা স্টেডিয়ামে এসে কৃতজ্ঞাতা প্রকাশ অনুষ্ঠানে মিলিত হয়। শোভাযাত্রায় সুনামগঞ্জের ১১ টি উপজেলা থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবি সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর মন্ত্রী পরিষদে সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় খসরা আইন অনুমোদিত হয়।

আপনার মন্তব্য