আজ শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

কানাইঘাটের ১৮১ জন শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিলো শিকদার ফাউন্ডেশন

 প্রকাশিত: ২০১৯-১১-২২ ০১:১২:১১

 বিআরটিসির চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) মো. এহসানে এলাহী বলেছেন, কানাইঘাটের শিক্ষার প্রসারে শিকদার ফাউন্ডেশন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

আজ আপনার সন্তানরা অনেক শিক্ষার্থীর মাঝে বৃত্তি পেয়ে নিজেকে যোগ্য প্রমাণ করেছে। এখন আপনাদের দায়িত্ব হচ্ছে আপনাদের সন্তানদের যথাযথ নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে তাদের আগামী পৃথিবীর যোগ্যতাসম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা।

উপস্থিত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বর্তমান পৃথিবী অনেক চ্যালেঞ্জিং, তাই তোমরা এখানে বসে না থেকে পৃথিবীকে গড়ার জন্য তোমাদের কঠিন অধ্যবসায় ও পরিশ্রম করতে হবে। কেননা পৃথিবীকে গড়তে হলে আগে নিজেকে প্রস্তুত হতে হবে।  

তিনি বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার রাজাগঞ্জ শিকদার ফাউন্ডেশন কলেজে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার ১৮১ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। 

শিকদার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার কুতুব উদ্দিন আহমদ শিকদার (এম.বি.ই) সভাপতিত্বে ও প্রভাষক রাসেল আহমদের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা ড. খাজা শাহাব আহমদ, দক্ষিণ বানিগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সভাপতি রোটারিয়ান শাহজাহান সেলিম বুলবুল, সাবেক চেয়ারম্যান বাহাউদ্দিন চৌধুরী, মানিকগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এখলাছে এলাহী, সুরমা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাজিদ মিয়া।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব এ. কে. এম. বদরুল আমিন হারুন।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, শিকদার ফাউন্ডেশন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমান, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের কোষ্যাধক্ষ মিসবাহুল ইসলাম চৌধুরী, প্রভাষক জুয়েল আলম, কলে­াল রায়, মোহিত লাল, মোস্তাাফিজুর রহমান, মাসুম আহমদ, আসমা আরা বেগম, ইফতেখার আহমদ প্রমুখ। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথিবৃন্দ বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ ও বৃত্তি প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে র‌্যাফেল ড্র এর মাধ্যমে ১৮১ জন বৃত্তিপ্রাপ্ত ছাত্রছাত্রী মধ্য থেকে ৩জনকে পুরুস্কৃত করা হয়। এতে ১ম রুজিনা বেগম, ২য় সালমান আহমদ, ৩য় খালেদ আহমদ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিকে ফুল দিয়ে বরণ করেন কলেজের শিক্ষার্থী রোকসানা বেগম।

আপনার মন্তব্য