আজ শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯

সিলেট আওয়ামী লীগে উৎসবের উচ্ছ্বাস

 প্রকাশিত: ২০১৯-১১-২২ ০০:৪৫:২৮

 এমন ক্ষণ সিলেট আওয়ামী লীগে খুব বেশি আসে না। সর্বশেষ এসেছিল ১৪ বছর আগে। এরপর এবার দলটির নেতাকর্মীদের জন্য উচ্ছ্বাসে মাতার সেই ক্ষণ এসেছে।

আগামী ৫ ডিসেম্বর সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। আলিয়া মাদরাসা মাঠে একই দিনে হবে উভয় ইউনিটের সম্মেলন। এ সম্মেলন ঘিরে সিলেটে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে এখন উৎসবের উচ্ছ্বাস। একদিকে বহু বছর পর সম্মেলন, অন্যদিকে আসবে নতুন নেতৃত্ব-এ দুইয়ে মিলে নেতাকর্মীরা এখন উজ্জীবিত।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, সিলেট আওয়ামী লীগে সর্বশেষ সম্মেলন হয় ২০০৫ সালে। এরপর ২০১১ সালের নভেম্বরে গঠিত হয় সর্বশেষ কমিটি। জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের ওই কমিটির মেয়াদ শেষ হয় ২০১৪ সালের নভেম্বরে। কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও দীর্ঘ প্রায় ৫ বছরেও হয়নি নতুন কমিটি। তিন বছরের কমিটি দিয়ে তাই পেরিয়ে গেছে ৮ বছর।

জানা গেছে, সম্প্রতি সিলেট সফরে আসেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। বছরের পর বছর ধরে কমিটি করতে না পারায় উভয় নেতাই সিলেট আওয়ামী লীগের নেতাদের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তাঁরা দলের কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগেই সিলেটে সম্মেলন শেষ করার নির্দেশ দেন।

এরই প্রেক্ষিতে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ ৫ ডিসেম্বর এবং মহানগর আওয়ামী লীগ ৩০ নভেম্বর সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করে। পরে কেন্দ্রের নির্দেশে মহানগরের সম্মেলন ৪ ডিসেম্বরে নেওয়া হয়। এরপর আবারও কেন্দ্রের নির্দেশে উভয় শাখার সম্মেলন একই দিন তথা ৫ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়। আলিয়া মাদরাসা মাঠে অনুষ্ঠিতব্য এ সম্মেলনে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গেছে।

আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, সম্মেলন ঘিরে দলের নেতাকর্মীরা এখন উৎসবের আমেজে আছেন। প্রচারণাও চলছে সমানতালে। দীর্ঘ প্রতিক্ষীত হওয়ায় এবার সম্মেলনে নেতাকর্মীদের আগ্রহও উত্তুঙ্গে।

এ প্রসঙ্গে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান সিলেটভিউকে বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর সম্মেলন হচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই দলের নেতাকর্মীরা অনেক উজ্জীবিত। তাদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।’

তিনি জানান, সম্মেলনের আগে জেলা শাখার আওতাধীন ১৩টি উপজেলার মধ্যে ইতিমধ্যেই ৮টি উপজেলায় কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হয়েছে। বাকিগুলোতে কয়েক দিনের মধ্যেই কমিটি পূর্ণাঙ্গ হবে।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, ‘সিলেটে আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘিরে ব্যাপক প্রচারণা চলছে। জেলা, উপজেলা সবখানে চলছে প্রচারণা। সম্মেলনে দলের সকল শাখা থেকে কাউন্সিলর, ডেলিগেটসরা আসবেন। কেন্দ্রীয় নেতারা থাকবেন। সব প্রস্তুতি আমরা সম্পন্ন করছি।’

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ সিলেটভিউকে জানান, সম্মেলনের জন্য মহানগর আওয়ামী লীগ পুরোপুরি প্রস্তুত। মহানগর শাখার ২৭টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৬টিতে সম্মেলন বাকি ছিল। সেগুলোতেও সম্মেলন করা হয়েছে।

এদিকে, সম্মেলন ঘিরে সিলেট নগরীর বিভিন্ন স্থানে বিলবোর্ড, ব্যানার, ফেস্টুন টানাচ্ছেন নেতাকর্মীরা। নগরীর সুরমা পয়েন্ট, লামাবাজার, চৌহাট্টা, সোবহানীঘাট, আম্বরখানা, টিলাগড়, বালুচর প্রভৃতি এলাকায় বেশকিছু বিলবোর্ড, ফেস্টুন দেখা গেছে। বিশেষ করে সম্মেলনস্থল আলিয়া মাদরাসা মাঠের আশপাশেই বিলবোর্ড, ব্যানার বেশি লাগানো হয়েছে।

এসব বিলবোর্ড, ফেস্টুনে বিভিন্ন নেতাকে ‘সভাপতি পদে, সাধারণ সম্পাদক পদে দেখতে চাই’ ধরনের কথাবার্তা লিখা রয়েছে।

আপনার মন্তব্য