আজ রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

চট্রগ্রামের সাঁড়া জাগানো তরুন সিলেটের তানভীর

 প্রকাশিত: ২০১৯-০৮-২৮ ০০:১৭:১০

 আপডেট: ২০১৯-০৮-২৮ ০০:৪৫:৩২

  সমসাময়িক বীর চট্রলার আলোচিত তরুন উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ী প্রকৌশলী তানভীর শাহরিয়ার রিমন সফলতায় তাঁর সমবয়সী সকলকে পিছনে ফেলে অল্প বয়সেই চট্রগ্রামের শীর্ষ রিয়েল এস্টেট কোম্পানী Ranks FC properties Ltd এর সিঁইও হয়ে তাঁক লাগিয়ে দিয়েছেন অনেককে।

চট্রগ্রামের আলোচিত ব্যবসায়ী হলেও তিনি মূলত পূণ্যভূমি সিলেটের সন্তান।

জন্ম, স্কুল কলেজ জীবন কেটেছে সিলেটে। এইচএসসি পাশ করে উচ্চ শিক্ষার জন্য চলে যান চট্রগ্রামে, সেখানে ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্সে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করলেও গ্রেজুয়েশন সম্পন্ন করার আগেই মাত্র একুশ বছর বয়সে একটি রিয়েল এস্টেট কোম্পানীতে মাত্র ছয় হাজার টাকা বেতনে নির্বাহী মার্কেটিং হিসেবে নিজের প্রফেশনাল ক্যারিয়ার শুরু করেন, আজকের আলোচিত এই সিঁইও।

তারপর আর থেমে থাকেন নি। নিজের মেধা আর যোগ্যতায় মাত্র ছাব্বিশ বছর বয়সে একটি কোম্পানীর বিভাগীয় প্রধান হন যা তাঁর সহকর্মীরাও মেনে নিতে পারেননি।

কর্ম ক্ষেত্রে সবধরনের চ্যালেন্জ মোকাবেলা করে মাত্র বারো বছরের ব্যবধানে শীর্ষ এই রিয়েল এস্টেট কোম্পানীর শীর্ষ পদে আরোহন করেন সিলেটের এই কৃতি সন্তান।

সম্প্রতি তিনি তাঁর ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেন- "আমি বিশ্বাসী মানুষ । তাই ডেসটিনিতে আমার অগাধ আস্থা । জীবনে অনেক কিছুই পরিকল্পনা করে হয়নি । পেশাগত জীবনে ঢুকেছি সময়ের অনেক আগে ।

কিছুটা জেদ, কিছুটা সময়ের দাবিতে । তবে যখন শুরু করেছি, এবাদতের মতো করে শুরু করেছি । এই একটা বিষয় পার্থক্য গড়ে দিয়েছে । সময়ের আগে যখন সাফল্য এসেছে, মাথা বিগড়ে যায়নি ।

বরং ভয় কাজ করেছে যেকোনো সময় ব্যর্থতা আসতে পারে এই ভেবে । তাই পেশাগত জীবনের শুরুতে আমাকে যারা আঘাত দিয়েছে, মানসিক কষ্ট দিয়েছে তাদের প্রতি আমি কখনো প্রতিশোধ পরায়ন হইনি ।

বরং যখন আমি সাফল্যে ভেসেছি, তাদেরকে ভালোবাসা দিয়েছি । আগলে রেখেছি । আমি সবসময় জানতাম, সাফল্য একটা ক্ষনস্থায়ী বিষয় আবার এটা একটা ধ্রুবকও ! যদি মাথা নিচু রাখা যায়, সহকর্মীদের পাশে থাকা যায় তবে এই সাফল্য দীর্ঘ হতে পারে...।

আমি তাই নিজের কাছে দায়বদ্ধ থেকেছি সবসময় । অফিসকে একটা পরিবার বানাতে চেয়েছি সবসময় । আজকাল যে ইমোশনাল ইন্ট্রিলিজেন্স এর এতো জয়জয়কার, আমি এই দর্শনের এক ছাত্র, সেই শুরু থেকে ।

মহান আল্লাহর রহমত, বাবা-মার দোয়া, স্ত্রীর সহযোগিতা, সাপোর্ট আমাকে এই পথ পাড়ী দিতে সহায়তা করেছে ।

কোনোদিন যদি আমার কিছুই না থাকে, সেদিনও আমি যেন এই স্পিরিটটা ধরে রাখতে পারি, সেই দোয়া চাই" তাছাড়াও তানভীর শাহরিয়ার রিমন একজন পাবলিক স্পীকার হিসেবে সারা দেশে ব্যাপক পরিচিত, তিনি তরুনদের ক্যারিয়ার গঠনে উৎসাহ ও পরামর্শ দিতে চষে বেড়াচ্ছেন সারা দেশ।

আপনার মন্তব্য