আজ শনিবার, ০৮ অগাস্ট, ২০২০

সামাজিক দূরত্বের বিধান মেনে এবারের হজ্ব, অবাক বিশ্ব

 প্রকাশিত: ২০২০-০৭-৩০ ১৫:০৪:১৬

নানা জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে প্রতিবছরের মত এবারও পালিত হচ্ছে ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে অন্যতম পবিত্র হজ্ব।
তবে এবছর হাজীর সংখ্যা মাত্র এক হাজার যেখানে প্রতিবছর ২০লাখের বেশি মানুষ অংশ নেয়।

বুধবার থেকে শুরু হয়েছে হজ্বের আনুষ্ঠানিকতা। তবে বৈশ্বিক বিপর্যয় সৃষ্টিকারী মহামারি করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) থেকে রক্ষা পেতে এবার হজ্বে সর্বোচ্চ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে সৌদি সরকার।

হজ্বের জন্য মনোনীতদের প্রত্যেকের করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে। হজ্ব শুরুর আগেই দুই ধাপে কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।
 হজে অংশগ্রহণকারী ও আয়োজকদের বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। রোগ প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুসারে এ বছর হজ্বের সময় কাবা শরিফ স্পর্শ বা চুম্বন নিষিদ্ধ থাকবে।

 হজ্বের প্রতিটি কাজে একজন থেকে অন্যজনের শারীরিক দূরত্ব থাকবে ১.৫ মিটার (পাঁচ ফুট)। তাওয়াফ, নামাজ, সাঈ প্রতিটি কাজেই এই দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এছাড়া মিনা, আরাফাহ ও মুজদালিফায় ২আগস্ট পর্যন্ত হাজিদের জন্য অবস্থান নির্ধারিত থাকবে।
হজ্ব পালনের জন্য সমবেত ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরপরই পবিত্র মসজিদুল হারাম (কাবা শরিফ) থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার দূরে মিনায় পৌঁছান।


মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে, সেলাইবিহীন দুই টুকরা সাদা কাপড় ও মুখে মাস্ক পরে এবং নির্দিষ্ট শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে সুশৃঙ্খলভাবে কাবা শরিফ তাওয়াফ করছেন
 হজযাত্রীরা। মাথায় রং-বেরঙের ছাতা। নির্দিষ্ট দূরত্বে চিহ্নিত রেখার ওপর দিয়ে তাওয়াফ করছেন তারা। অথচ অন্যান্য বছর প্রচণ্ড ভিড় থাকে এখানে। কিন্তু এ বছর দেখা গেছে সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র।
শৃঙ্খলার অপূর্ব দৃষ্টান্ত ইতিহাস হয়ে থাকবে বলে সবার ধারণা।

আপনার মন্তব্য